বুধবার - ২৯ আশ্বিন ১৪২৭ - ১৪ অক্টোবর ২০২০ - Oct 24, 2020
   শিক্ষা ও স্বাস্থ্য

নৈতিক অবক্ষয় রোধ : কৈশোর থেকে তারুণ্য

নৈতিক অবক্ষয় রোধ : কৈশোর থেকে তারুণ্য


শৈশব ডেস্ক | কাছেদূরে ডটকম

ইলা মুৎসুদ্দি :

আমরা যখন দেখি একটা ২০-২২ বছরের যুবক সিগারেট, মদ কিংবা অন্যান্য নানা নেশায় মত্ত হয়ে আছে, তখন আমরা বলি তরুণ সমাজ ধ্বংসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। তাকে রুখতে হবে। আমরা গোড়াতেই গলদ করি। কারণ আমরা শৈশব থেকে কৈশোর বয়সের সময়টাকে উপেক্ষা করে যাই।


একটু চিন্তা করে দেখুন তো যে শিশুকে আপনি শৈশব থেকে নানাবিধ সুশিক্ষা দিয়ে এসেছেন (যেমনঃ গুরুজনদের মান্য করা, সময়মত লেখাপড়া করা, নামাজ পড়া (যার যার ধর্মানুযায়ী), প্রার্থনা করা, কোন আত্মীয় বেড়াতে আসলে তাদের যথাযোগ্য মর্যাদা দেওয়া, প্রতিবেশীদের সাথে কিংবা বন্ধুদের সাথে ভালো আচরণ করা) সেইসব শিশুরা কিন্তু তারুণ্যে এসে নিজেদের সহজে বিপথে পরিচালিত করবে না। কারণ আমাদের অবচেতন মনে আমাদের মা-বাবার দেয়া শিক্ষার শিকড় প্রোথিত রয়েছে ওতপ্রোতভাবে। যেটাকে ঝেড়ে ফেলা এতটা সহজ না। সহজ না বলেই আজও পারিবারিক মূল্যবোধ বলতে অবশিষ্ট কিছু আছে।

অবশ্য তখন তো এরকম বিভিন্নভাবে প্রযুক্তির ব্যবহার ছিল না। সন্তানরা মা-বাবার কথা শুনতেন। সহজে অন্যায় আচরণ করতেন না। আরেকটি বিষয় হচ্ছে বর্তমান যুগ ডিজিটাল যুগ। যেখানে প্রতিটা পরিবারের সদস্যদের রয়েছে মোবাইল, ট্যাব, ল্যাপটপ, আই ফোন ইত্যাদি অত্যাধুনিক জিনিস।

যার বদৌলতে যে কোন সন্তান মুহূর্তেই বদলে যেতে পারে। যদি তাদের হাতে এসব নির্দ্বিধায় তুলে দেয়া হয়। তুলে দেয়া হয় ভুল বলছি অহরহ সবাই তুলে দিচ্ছে কিংবা দিতে বাধ্য হচ্ছে। যার কারণে প্রেক্ষাপট পরিবর্তন হয়ে যাচ্ছে দিনের পর দিন। শিশু কিশোরদের মাঝে সম্প্রীতি, বন্ধুত্ব, ভালবাসার পরিবর্তে সহিংসতা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

সহিংসতার দুর্যোগ ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। প্রতিদিন পত্রিকার পাতা খুললেই এরকম নৃশংস ঘটনার কথাই পড়তে হয় । কারণ এক বন্ধু ৬০০০ টাকার মোবাইল ব্যবহার করছে, সেটা যখন আরেক বন্ধু নিতে চাইল, দিল না তখুনি ওদের মাঝে সৃষ্টি হচ্ছে দ্বন্দ্ব, কলহ। যার পরিণতি মৃত্যু ও খুন খারাবিতে গিয়ে ঠেকে। সম্প্রতি ঘটে গেল আরেকটি মর্মান্তিক ঘটনা যা কারো কাম্য ছিল না। কলেজিয়েট ষ্কুলের নবম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্র আদনানকে খুন করা হলো প্রকাশ্যেই। এই ঘটনায় জড়িত সকলেই কম বয়সী তরুণ।

কেন এভাবে কিশোর বয়সেই তারা এতটা হিংস্র হয়ে উঠেছে? বয়সটা যাই হোক এই যে প্রযুক্তির কারণে সহিংসতা বেড়েই চলেছে। সন্তানরা বিপথে পরিচালিত হবার পেছনে মূল কারণ কিন্তু উন্নত প্রযুক্তির অপব্যবহার। এই অপব্যবহার রোধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।

আমরা জেনে শুনে বিষপান করছি প্রতিনিয়ত। বর্তমানে বাংলাদেশে বেশীরভাগ পরিবার (যাদের ষ্কুল পড়য়া ১৪-১৫ বছরের সন্তান আছে) আতঙ্কগ্রস্থ। কারণ তাদের সন্তানরা মোবাইলের মাধ্যমে সবসময় ভিডিও গেম খেলছে। আবার কেউবা খারাপ কিছু দেখছে। কেউবা রাস্তার ধারে দাড়িয়ে লুকিয়ে লুকিয়ে সিগারেট প্রাকটিস করছে। বিপথে গিয়ে অনেক মেধাবী কিশোর পরীক্ষায় খারাপ রেজাল্ট করছে। এটা অতি বাস্তবসম্মত।

প্রতিটি মা-বাবাই চায় সন্তান সুশিক্ষিত হোক। কিন্তু আমাদের সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে যেভাবে ঘুণপোকা ধরেছে, সেই সমাজে একটা ছেলেকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করা বড় কঠিন হয়ে যাচ্ছে। বর্তমান কর্পোরেট যুগে কেউ ঘরে বসে নেই। সকলেই একপ্রকার দৌঁড়াচ্ছে যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য। সংসারের সুখের জন্য, সন্তানদের সুন্দর ভবিষ্যতের জন্য স্বামী-স্ত্রী দুজনেই পরিশ্রম করছেন প্রতিনিয়ত।

এ কারণেই দেখা যায় বেশীরভাগ পরিবারে মা চাকুরীজীবি, বাবা হয়তো ব্যবসায়ী কিংবা চাকুরীজীবি। সন্তানদের সবসময় নজরে রাখা সম্ভব হয় না এবং সময়ের অভাবও অনেকাংশে দায়ী। যার ফলে সন্তানরা স্বাধীনভাবে মোবাইল, ট্যাব কিংবা ল্যাপটপ ব্যবহার করছে। আর স্বাধীনতা বেশি পাওয়ার কারণে তারা খুব সহজেই বখে যাচ্ছে কৈশোর থেকেই।

অনেক অভিভাবক মনে করেন সন্তান একটি অন্যায় করল, এজন্য তাকে শাস্তি হিসাবে বেত্রাঘাত করলাম, সকলের সামনে অপমান করলাম তাতেই কাজ হবে। এক্ষেত্রে কিন্তু বিপরীতটাই হয়। সন্তানটি আরো বেশী উচ্ছৃংখল হয়ে যায়। হয়তো সুন্দরভাবে বোঝানো যায়। কিন্তু কতক্ষণ বোঝাবেন? যতক্ষণ বাসায় থাকে ততক্ষণ ঠিক থাকে। যেই বন্ধুদের সাথে মিশতে যায় তখন আবার আগের মতো হয়ে যায়। এর সমাধান কিভাবে করা যায় সেই চিন্তা করাটা জরুরী হয়ে পড়েছে। এসব প্রতিরোধে পরিবারের সকলকে সচেতন হতে হবে পাশাপাশি ষ্কুলের শিক্ষকরাও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।

প্রতিটা ষ্কুলে যদি সপ্তাহে একদিন এই বিষয়ে ষ্কুলের শিক্ষার্থীদের নিয়ে মতবিনিময় সভার আয়োজন করে, শিক্ষার্থীদের সুন্দরভাবে প্রযুক্তি ব্যবহারের সুফল, কুফল বুঝিয়ে দেন, নৈতিক মূল্যবোধ সম্পর্কে ছাত্র-ছাত্রীদের অবগত করেন তাহলে শিশু কিশোরদের সুপথে পরিচালিত হওয়ার মানসিক ভিত গড়া হয়তো অনেকাংশে সম্ভব । অনেক ছেলে-মেয়ে আছে যারা শিক্ষকদের কথাকে খুবই মূল্যায়ন করে।

আজকের কিশোররাই আগামী দিনের তারুণ্য। তারাই দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ। তাদের সুন্দরভাবে নৈতিক শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হলে পারিবারিক মূল্যবোধ সম্পর্কে জ্ঞান দান, ধর্মচর্চায় অভ্যস্ত করে উন্নত প্রযুক্তির মোবাইল, ট্যাব, ল্যাপটপ বিনা কারণে তাদের হাতে তুলে দেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। এসবের পরিবর্তে বেশী বেশী সন্তানের পছন্দমতো শিক্ষণীয় বই তাদের হাতে তুলে দিন। বই পড়তে উৎসাহিত করুন।

আগেকার সময়ে বেশীরভাগ শিক্ষার্থী বই পড়তে বেশী উৎসাহী ছিলো। তাই তারা অন্যদিকে মনঃসংযোগ করতো না। আলোকিত মানুষ হিসাবে গড়ে তুলতে হলে বইয়ের কোন বিকল্প নেই। বর্তমান সময়ে ইন্টারনেট এর বদৌলতে বই পড়ার হার অনেকাংশে কমে গেছে। পরিবারের অভিভাবকদের উচিত জন্মদিনে বা বিশেষ কোন দিবসে সন্তানদের বিভিন্ন রকমের বই উপহার দিয়ে তাদের পড়তে উৎসাহিত করা। বিভিন্ন সৃজনশীল কাজের সহিত যুক্ত করানো এবং বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের সুযোগ করে দেয়া। যেমন কবিতা আবুত্তি, গান, নাচ, অভিনয় কিংবা বিতর্ক করার মনমানসিকতায় সন্তানদের গড়ে তোলা। ছোটকাল থেকেই ওদের এসবের প্রতি আগ্রহী করে তোলার দায়িত্ব পরিবারের সকলের।

সৃজনশীল যে কোন বিষয়ের প্রতি আগ্রহটা এনে দিতে পারলে সেই সন্তানকে নিয়ে আর চিন্তা করতে হবে না। তার মধ্যে সৃজনশীলতার বিকাশ ঘটবেই। তাই পরিবারের সকলেই সচেতন হউন, সন্তানদের বিপথে যাওয়া রুখে দিন। নাহলে ভবিষ্যত বড়ই অন্ধকার।

লেখক: প্রাবন্ধিক ও কলাম লেখক

বাংলাদেশ, ২০ জানুয়ারি ২০১৮ শনিবার, ০১:০০ পিএম


শিশুদের প্রয়োজন প্রকৃতির মুক্ত আকাশ
   শিশুদের প্রয়োজন প্রকৃতির মুক্ত আকাশ

শৈশব ডেস্ক | কাছেদূরে ডটকম

ইলা মুৎসুদ্দি :

আমরা যারা শহুরে বাসিন্দা তারা খুবই গর্ববোধ করি আমাদের সন্তানদের নিয়ে। কারণ আমার সন্তান সব জানে। কী কী জানে? কম্পিউটার চালাতে জানে, ল্যাপটপে বসে গেম খেলতে জানে, মোবাইল নিয়ে কল করতে জানে, ভিডিও গেম খেলতে জানে এক কথায় আধুনিক সব যন্ত্রপাতি নিয়ে কাজ করতে পারে আমার সন্তান।
বিস্তারিত


ঘরে বসেই ইংরেজি ও আইইএলটিএস কোর্স
   ঘরে বসেই ইংরেজি ও আইইএলটিএস কোর্স

এমরানুর রহমান তুষার

করোনাভাইরাসের বৈশ্বিক মহামারীর কারণে আজ থেমে গেছে পুরো বিশ্ব। বিশ্বের অনেক দেশেই যোগাযোগ ব্যবস্থা, অর্থনীতির পাশাপাশি বন্ধ আছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোও।

বিস্তারিত


ইংরেজি ও আইইএলটিএসে দক্ষ হোন নিজে নিজেই
   ইংরেজি ও আইইএলটিএসে দক্ষ হোন নিজে নিজেই

এমরানুর রহমান তুষার

ক্যারিয়ার গড়ার জন্য জীবনে একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি যে কয়েকটি দক্ষতা বা যোগ্যতার প্রয়োজন সেগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে ইংরেজি ভাষা জানা।

বিস্তারিত


শিশুদের শাস্তি দেওয়ার প্রবণতা বাংলাদেশি সংস্কৃতি থেকেই এসেছে
   শিশুদের শাস্তি দেওয়ার প্রবণতা বাংলাদেশি সংস্কৃতি থেকেই এসেছে

শৈশব ডেস্ক | কাছেদূরে ডটকম

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিশুদের শাস্তি দেওয়ার প্রবণতা বাংলাদেশি সংস্কৃতি থেকেই এসেছে বলে মনে করেন শিক্ষাবিদ ও অভিভাবকরা। তবে আইন অনুযায়ী বাংলাদেশে শিশুদের শারীরিক শাস্তি দেওয়া নিষিদ্ধ। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হলো, দেশের ৬৭ শতাংশ অভিভাবক তাদের সন্তানদের শৃঙ্খলিত করতে স্কুলে শারীরিক শাস্তি দেওয়াকে সমর্থন করেন। যাদের ৭৯ শতাংশই স্বীকার করেছেন, তারা বাড়িতেও সন্তানদের শারীরিক শাস্তি দিয়ে থাকেন।

বিস্তারিত


কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ধাক্কা : শঙ্কায় বিস্তার নিয়ন্ত্রণ করা দেশগুলো!
   কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ধাক্কা : শঙ্কায় বিস্তার নিয়ন্ত্রণ করা দেশগুলো!

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | কাছেদূরে ডটকম

করোনাভাইরাস মহামারী শেষ হতে অনেক দেরি। কিছু দেশ এখনও মহামারী নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খাচ্ছে। আর ভাইরাসটির বিস্তার নিয়ন্ত্রণ করতে পারা দেশগুলো এখন শঙ্কায় আছে সেকেন্ড ওয়েভ বা করোনাভাইরাস মহামারীর পরের পর্যায়ের ধাক্কা নিয়ে।

বিস্তারিত


মন্ত্রিসভার বৈঠকে অসুস্থ হয়ে আইভরি কোস্টের প্রধানমন্ত্রীর মৃত্যু
   মন্ত্রিসভার বৈঠকে অসুস্থ হয়ে আইভরি কোস্টের প্রধানমন্ত্রীর মৃত্যু

নিউজ ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক | কাছেদূরে ডটকম

মন্ত্রিসভার সাপ্তাহিক বৈঠক চলাকালীন অসুস্থ হওয়ার পর মারা গেছেন আইভরি কোস্টের প্রধানমন্ত্রী আমাদু গোন কুলিবালি।

বিস্তারিত


শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ৬ আগস্ট পর্যন্ত
   শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ৬ আগস্ট পর্যন্ত

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | কাছেদূরে ডটকম

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে শিক্ষার্থীদের সার্বিক নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আগামী ৬ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।

বিস্তারিত


মেয়াদোত্তীর্ণ লাইসেন্স দিয়েই চলছে অর্ধেকের বেশি বেসরকারি হাসপাতাল
   মেয়াদোত্তীর্ণ লাইসেন্স দিয়েই চলছে অর্ধেকের বেশি বেসরকারি হাসপাতাল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | কাছেদূরে ডটকম

প্রতিটি বেসরকারি হাসপাতালের প্রতিবছর লাইসেন্স নবায়নের বাধ্যবাধকতা থাকলেও ৫০ ভাগ বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকের লাইসেন্স মেয়াদোত্তীর্ণ । এছাড়াও কমপক্ষে শতকরা ১০ ভাগ হাসপাতালের কোনো লাইসেন্সই নাই৷ গত দুই বছরে লাইসেন্স বাতিল হয়েছে মাত্র একটি হাসপাতালের৷ খবর ডয়চে ভেলের।

বিস্তারিত


রূপ পাল্টেছে করোনাভাইরাস: আরও সংক্রামক হতে পারে
   রূপ পাল্টেছে করোনাভাইরাস: আরও সংক্রামক হতে পারে

শিক্ষা ও স্বাস্থ্য ডেস্ক | কাছেদূরে ডটকম

ফ্লোরিডার একদল গবেষক মনে করছেন, তারা দেখাতে পেরেছেন যে নতুন করোনাভাইরাস এমনভাবে পরিবর্তিত হয়েছে যাতে এটি আরও সহজে মানুষকে সংক্রমিত করতে পারে।

বিস্তারিত


কাছেদূরে লাইভ: এ মুহূর্তে ডিজিটাল পদ্ধতিতে শিক্ষা গ্রহণের বিকল্প নেই
   কাছেদূরে লাইভ: এ মুহূর্তে ডিজিটাল পদ্ধতিতে শিক্ষা গ্রহণের বিকল্প নেই

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | কাছেদূরে ডটকম

বৈশ্বিক মহামারী কোভিড-১৯ এর সংক্রমণে স্থবির হয়ে পড়েছে সমগ্র বিশ্ব। স্থবিরতার এ সময়ে শিক্ষাক্ষেত্রে চরম ক্ষতির সম্মুখীন হতে চলেছে।

বিস্তারিত




ভিডিও (কাছেদূরে টিভি)

ফটো গ্যালারি

  বিজ্ঞাপন প্যানেল







  অনলাইন মতামত

  বিজ্ঞাপন প্যানেল